গৃহবধূ ধর্ষণের অভিযোগ এক কলেজছাত্রের বিরুদ্ধে


কলেজছাত্রের বিরুদ্ধে

সিলেটের বিশ্বনাথে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের অভিযোগে জাহেদ হোসেন মুরাদ (২৩) নামে এক কলেজছাত্রকে আটক করে থানা পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয় জনতা।

আটক মুরাদ সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার বড়চড়া গ্রামের আবদুন নুরের ছেলে। এ ঘটনায় ধর্ষিতা গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে মুরাদকে আসামি করে বিশ্বনাথ থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

জানা গেছে, জাহেদ হোসেন মুরাদ দীর্ঘদিন ধরে বিশ্বনাথ উপজেলার দেওকলস ইউনিয়নের পুরান সৎপুর গ্রামে তার খালার বাড়িতে সপরিবারে বসবাস করে আসছেন। তিনি তাজপুর ডিগ্রি কলেজের ৩য় বর্ষের ছাত্র। খালার বাড়িতে বসবাসের সুবাদের পার্শ্ববর্তী সৎপুর খাসজান গ্রামের এক গৃহবধূর সঙ্গে তার পরকিয়া সম্পর্ক সৃষ্টি হয় এবং তিনি প্রায়ই ওই গৃহবধূর ঘরে গোপনে যাওয়া আসা করেন।

একপর্যায়ে তাদের মধ্যে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ওই গৃহবধূ ৮ মাস বয়সী এক কন্যা সন্তানের জননী। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৯ টায় জাহেদ হোসেন মুরাদ ওই গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করলে স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করেন। এরপর বুধবার ভোর রাতে থানা পুলিশের কাছে মুরাদকে স্থানীয় জনতা সোপর্দ করেন।

এদিকে ষড়যন্ত্র মূলকভাবে মিথ্যা অভিযোগে মুরাদকে ফাঁসানো হয়েছে দাবি করে তার বোন বলেন, অনেকের সাথেই ওই গৃহবধূ অনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে। সে আমার ভাইকে কুপ্রস্তাব দেয়।

কিন্ত তাতে রাজি না হওয়ায় রাস্তা থেকে আমার ভাইকে ধরে নিয়ে, রাতভর নাটক সাজিয়ে পুলিশের কাছে তাকে সোপর্দ করা হয় এবং ষড়যন্ত্র মূলকভাবে মিথ্যা অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়। আমার ভাই সম্পূর্ণ নির্দোশ।

মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামীম মূসা বলেন, আটক জাহেদ হোসেন মুরাদকে বুধবার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

রেদওয়ানুল/আওয়াজবিডি