নুসরাতের মত অনেক ঘটনা ঘটে, বাধার কারণে চুপ থাকে


ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা

সম্প্রতি ফেনীতে গায়ে আগুন দিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাতকে হত্যার ঘটনা উল্লেখ করে বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেছেন, শুধু নুসরাতই নয়, প্রতিনিয়ত অনেক ঘটনা ঘটে। কিন্তু সামনে আসে কম। কারণ ব্যক্তিগত, পারিবারিক এবং সামাজিক বাধার কারণে অনেকে চুপ থাকে। সাহস করে কিছু বলতে পারে না।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) রাতে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সরাসরি টক-শো অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেন, একটা মেয়ে যখন নির্যাতনের শিকার হয় তখন তাকেই উল্টো নানান ধরণের প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়। বলা হয় তাকেই কেন এই পরিস্থিতির মুখে পড়তে হল। প্রশ্ন ওঠে, মেয়েটির পোশাক নিয়ে, চলাফেরা নিয়ে। আসলে আমাদের মানসিকতা এমন, এত ভয়ঙ্করের দিকে যাচ্ছে যেখানে ধর্ষণের জন্য নারীর কোন বয়স লাগে না। পাঁচ মাসের শিশু থেকে বয়স্ক নারী পর্যন্ত, কেউ বাদ যাচ্ছে না। আমাদের সমাজের যে ভয়াবহ চিত্র দেখা যায় সে ভয়ঙ্কর নির্মমতা একদিনে তৈরি হয়নি। একজন নারী যখন রাষ্ট্রের কাছে বিচারের জন্য যায় তখন সে জায়গাটিকে নিরাপদ মনে করেই যায়। কিন্তু সে জায়গাটি আসলে নারীবান্ধব নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

রুমিন ফারহানা বলেন, নুসরাতের ঘটনাটি দেখলেই বোঝা যায়, পুলিশ তার সাথে কি আচরণ করেছে। তার ঘটনা ভিডিও করেছে। সুতরাং এটা স্পষ্ট, রাষ্ট্রের কাছে যখন বিচারের জন্য যাওয়া হয়, সে জায়গাটি আসলে নারীবান্ধব নয়। আসলে আমাদের সমাজ কাঠামোটাই পুরুষতান্ত্রিক। শুরুতেই আমরা ধরে নেই এটা আসলেই মেয়েটি এবং তার পরিবারের জন্য বিড়ম্বনা। ভিকটিম মেয়েটির হাশকাস দেখে একসময় তার পরিবার থেকে নিরস্ত করা হয়। পরবর্তীতে সে যদি তার পরিবারের বাধা অতিক্রম করেও তখন সমাজ তার দিকে আঙ্গুল তুলে কথা বলে। যে দেশে ৯৪ শতাংশ নারী গণপরিবহনে কোন না কোন ভাবে যৌন নির্যাতনের শিকার হয়, পারিবারিক নির্যাতনের শিকার হয় ৮৮ শতাংশ। সেখানে নারীর প্রতি সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি কি সেটা সহজেই অনুমেয়।

Loading...