টেস্ট দল নিয়ে নতুন ভাবনা বিসিবির


বিসিবির

টেস্ট ক্রিকেটে পদার্পণের ১৯ বছর পার হলেও বলার মত কোনো উন্নতি হয়নি বাংলাদেশের। যার প্রমাণ সম্প্রতি হয়ে যাওয়া আফগানিস্তান ও চলমান ভারত টেস্টে টাইগারদের লজ্জাজনক হার।

যে বিষয়টিতে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়ার প্রয়োজন ছিল, সেটাই পড়েছিল অবহেলায়। তবে এবার টেস্ট নিয়ে নতুন করে ভাবছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। আলাদাভাবে হবে টেস্ট দল।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে গিয়ে বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন এসব কথা বলেন।

ভারতের বিপক্ষে চলমান টেস্টে মুমিনুলদের পারফর্মেন্স প্রত্যাশার চেয়েও খারাপ উল্লেখ করে পাপন বলেন, এটি প্রত্যাশা করিনি। আমরা ওডিআইতে মোটামুটি দল, টি-টোয়েন্টিতে যে ঘাটতি ছিল বিশ্বকাপের আগে ঠিক করব। সে দিক দিয়ে চিন্তা করলে সবচেয়ে দুর্বল টেস্টে। ভারতের টি-টোয়েন্টি দল থেকে শুধু রোহিত শর্মা আসছে। কিন্তু টেস্টে এখন যারা খেলছে এর আগেও সবাই এ ফরম্যাটে খেলেছে।

তিনি বলেন, আলাদা মাইন্ডসেট করতে হবে। আলাদা টিম করতে হবে। আমরা যে প্ল্যানে এগোচ্ছি, তাতে এক থেকে দেড় বছর পর আমরা আশা করছি আমাদের একটা টেস্ট দল হবে। খেলা কেমন খেলবে জানি না, তবে একটা প্রোপার টেস্ট দল তৈরি করব।

পেস বোলিং নিয়ে আলাদা পরিকল্পনার কথা জানিয়ে বোর্ড সভাপতি জানান, আমাদের আসল সমস্যা এখন পেস বোলিং। স্পিনে আমরা আহামরি কিছু ছিলাম না, হোমে (দেশের মাটি) ছাড়া। পেস বোলিংয়ে যেমন মোস্তাফিজ কিন্তু আমাদের টপেস বোলিংয়ে সাপোর্ট দিয়ে আসছিল। কিন্তু সেও কিন্তু ঠিক সেভাবে ধারাবাহিক হতে পারছে না। এখন এটা নিয়ে কাজ করতে হবে। বের করতে হবে কী করা যায়।

নাজমুল হাসান বলেন, কোনো সন্দেহ নেই- এ মুহূর্তে টেস্টে বিশ্বে সবচেয়ে শক্তিশালী দল ভারত। শক্তিমত্তা-সামর্থ্যে তাদের চেয়ে যোজন যোজন পিছিয়ে আমরা। তবে ন্যূনতম প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলতে না পারা আমাদের ব্যর্থতা।

এমন লজ্জাজনক হারের পর দেশের ক্রিকেট কাঠামো নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। এ প্রসঙ্গে বিসিবি প্রধান বলেন, অনেকেই অনেক রকম কথা বলে। ঘরোয়া স্ট্রাকচার, প্লেইং কন্ডিশন, পিচ নিয়ে প্রশ্ন তোলে। আমরা এরই মধ্যে রাজশাহী, খুলনা, বগুড়া- সব জায়গায় স্পোর্টিং উইকেট বানিয়েছি। এখন ছেলেরা ভালো খেলতে না পারলে তো কিছু করার নেই।

তিনি বলেন, ঘরোয়া কাঠামো নিয়েও প্রশ্ন তোলার অবকাশ নেই। আগের চেয়ে এটি এখন যথেষ্ট উন্নত হয়েছে। উল্টো সাংবাদিকদেরই পাপন জিজ্ঞাসা করেন, এ ছাড়া লোকজন আর কী বলে? আর কী আছে, আপনারা বলেন? কেন খেলতে পারি না আমরা? আর কী কী করতে বাকি আছে?

রেদওয়ানুল/আওয়াজবিডি