শেষ হচ্ছে তামিমের লাইভ আড্ডা


তামিমের লাইভ আড্ডা

লকডাউনের এই সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্রিকেট সমর্থকরা প্রাণ ভরে উপভোগ করেছে তামিম ইকবালের ভিন্নধর্মী লাইভ শোগুলো। তবে, শনিবার রাত সাড়ে দশটায় শেষ হচ্ছে তামিম ইকবালের এই আয়োজন। শেষ পর্বে বাংলাদেশ অধিনায়কের অতিথি হিসেবে থাকছেন মাশরাফী, মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। তবে, তামিমের উপভোগ্য শোতে সাকিব শেষ পর্বেও থাকছেন না বলে আক্ষেপ ক্রিকেট সমর্থকদের মাঝে।

তামিম ইকবাল দেশের ক্রিকেট সমর্থকদেরও আনন্দে উপলক্ষ্য এনে দিয়েছেন বহুবার। কিন্তু, গেলো কয়েক মাসে বিশ্বজুড়ে করোনার প্রতাপে ঘরবন্দী সবাই। ভাইরাসটির আতঙ্কে ক্রিকেট ক্যানভাসে আনন্দ উল্লাসে ভাটা পড়লে/ ভিন্ন উদ্যোগ নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

শুরুটা দোশরা মে মুশফিকুর রহিমকে দিয়ে। ইন্সটাগ্রামে লাইভের মধ্যে দিয়ে। দারুণ জমেছিলো। পরে বাংলাদেশের সমর্থকদের ব্যাপারটি মাথায় রেখে আয়োজনটি আরো জমিয়ে তুলতে বন্ধু মিনহাজের পরামর্শে ফেসবুকে লাইভ শো শুরু করেন। মাশরাফীর সাথে ফেসবুকের ঐ লাইভে এক লাখ ক্রিকেট সমর্থক প্রাণ ভরে উপভোগ করে তামিম আর মাশরাফীর রসায়ন। দারুণ উপভোগ্য এই লাইভগুলোতে পর্যাক্রমে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের পাশাপাশি সাবেক ক্রিকেটাররাও ছিলেন।

দেশের সীমানা পেরিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার তারকার ক্রিকেটার ফাফ ডু প্লেসি ভারতের দুই সুপার স্টার বিরাট কোহিল রোহিত শর্মা কিংবা ওয়াসিম আকরামের আগমন ভিন্ন মাত্র পায়। তামিম বুজিয়ে দেন মাঠের ক্রিকেটেই শুধু নয়, উপস্থাপনাতেও তিনি বেশ পারদর্শি।

এই আয়োজনে শেষ হচ্ছে তিন ম'কে নিয়ে মাশরাফী, মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহ থাকবে ১২তম ও শেষ পর্বে। তামিমের লাইভ শো'তে বাংলাদেশ দলের সব প্রাণ ভোমড়াই ছিলেন। কিন্তু, ছিলেন না ঐ একজন সাকিব আল হাসান। তাকে খুব করে চাইছে ক্রিকেট পিয়াসিরা। সাকিব আসলেই নাকি তামিম ইকবালের লাইভ শো' পাতো পূর্ণতা।

যদিও তামিম আগেই জানিয়ে দিয়েছেন/সাকিব ব্যক্তিগত কারণে থাকবেন না শেষ পর্বে। তবে, গেলো তিন সপ্তায় চার দেয়ালের মাঝে বন্দী জীবনে যে আনন্দের মাত্রা তামিম যোগ করেছেন। সেই আনন্দের ট্রেন আপাতত থামলেও, সবার প্রার্থনা একটা। এই পৃথিবী সুস্থ হলে ব্যাট হাতে ক্রিকেট ময়দানে তামিম নামের স্বপ্নে ইঞ্জিন ছুটবে দুরবার দুরন্ত গতিতে।

এসএম/আওয়াজবিডি

ads