দীর্ঘ ৭৮৭ দিন পর দলীয় কার্যালয় ছেড়ে বাসায় গেলেন রিজভী


রিজভী

কেন্দ্রীয় কার্যালয় ছাড়লেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী। দীর্ঘ ৭৮৭ দিন পর দলীয় কার্যালয় ছেড়ে নিজ বাসায় উঠলেন তিনি। আজ দুপুরে দলীয় কার্যালয় ছেড়ে দেন তিনি।

২০১৮ সালের ৩০শে জানুয়ারি থেকে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অবস্থান নেন বিএনপির এই সিনিয়র নেতা।

জানতে চাইলে রিজভী আহমেদ মানবজমিনকে বলেন বলেন, দীর্ঘদিন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ছিলাম। এখানেই আমার অনেকটা সময় কেটেছে। খুব কষ্ট হচ্ছে। যদিও আমি কেন্দ্রীয় কার্যালয় ছেড়ে একেবারের জন্য চলে যাচ্ছি না। দলীয় কার্যক্রমের প্রয়োজন হলে আমি তখন আসবো।

আপাতত আমি আমার নিজের বাসায় থাকবো। কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আমি দেশনেত্রীর মুক্তির আন্দোলনের অংশ হিসেবে অবস্থান করেছিলাম। এখানে থাকা অবস্থায় একটা আতঙ্ক বিরাজ করতো আমার মনে। তারপরেও বুকে সাহস নিয়ে অবস্থান করেছি। আমি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ ছিলাম যে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া যতদিন পর্যন্ত অবৈধ সরকারের কারাগার হতে মুক্ত না হন ততদিন পর্যন্ত দলীয় কার্যালয়েই থাকবো।

কষ্ট করে থেকেছি। গতকাল দেশনেত্রীর মুক্তিতে কিছুটা হলেও স্বস্তি লাগছে।

সরকারের নির্বাহী আদেশে গতকাল ছয় মাসের জন্য কারাগার থেকে মুক্তি পান বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এরপরই রিজভী সিদ্ধান্ত নেন যে তিনি আর দলীয় কার্যালয়ে রাত্রিযাপন করবেন না।

অতঃপর ২৬শে মার্চ স্বাধীনতা দিবসের দিন নয়া পল্টনের দলীয় কার্যালয় ছেড়ে রাজধানীর ভাড়া বাসায় যান রিজভী। দলীয় কার্যালয় ছেড়ে যাওয়ার সময় কার্যালয়ের কর্মকর্তা কর্মচারীরা তাকে বিদায় জানান।

তারা রিজভীর জন্য বিশেষভাবে দোয়া ও শুভকামনা করেন।

রেদওয়ানুল/আওয়াজবিডি

ads