শামীম আমার লোক হলে যুবলীগে গেলেন কীভাবে : মির্জা আব্বাস


মির্জা আব্বাস

বিপুল পরিমাণ অস্ত্র, মাদক ও অর্থসহ আটক যুবলীগ নেতা পরিচয়ধারী এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীমকে কিছু সংবাদমাধ্যমে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের লোক বলে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে এ তথ্য সত্য নয় বলে দাবি করেছেন বিএনপির এই নেতা।

মির্জা আব্বাস গণমাধ্যমকে বলেছেন, আমি জি কে শামীমকে চিনি না। আর তিনি যদি আমার লোক হতেন, তাহলে এতদিন তাকে ধরা হয়নি কেন।

তিনি যুবলীগে গেলেন কীভাবে। তাহলে যারা আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ করে সবাই আমার লোক! তাদের সবাইকে ধরতে বলেন।

আজ শুক্রবার দুপুর ২ টার দিকে রাজধানীর নিকেতন থেকে সাত দেহরক্ষীসহ যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীমকে আটক করে র্যাব।

তাকে আটকের পর বিভিন্ন গণমাধ্যমে ‘জি কে শামীম মির্জা আব্বাসের লোক’ বলে প্রকাশিত সংবাদের জবাবে মির্জা আব্বাস এ কথা বলেন। শামীম শাহজাহানপুর এলাকার টোকাই ছিলেন উল্লেখ করে মির্জা আব্বাস আরও বলেন, এসব টোকাইদের সঙ্গে মির্জা আব্বাস পরিবারের লোকজনের কখনোই যোগাযোগ রাখেনি বা কথা হয়নি। আর এরা কখনো আমাদের বাড়িতেও প্রবেশ করতে পারেনি। এদের কীভাবে চিনবো?

এদিকে, এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র্যাব-১ কার্যালয়ে নেয়া হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ১৪ মিনিটে তাকে জি কে বিল্ডার্স কার্যালয় থেকে নিয়ে যান র্যাব সদস্যরা।

গণমাধ্যমকে র্যাব সদর দফতরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল সারোয়ার বিন কাশেম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এর আগে শুক্রবার দুপুর ২ টার দিকে রাজধানীর নিকেতন থেকে র্যাবের এক অভিযানের মাধ্যমে আটক হন জি কে শামীম। এসময় তার কার্যালয় থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র, মাদক, নগদ ১০ কোটি টাকা ও প্রায় ২শ কোটি টাকার এফডিআর চেক উদ্ধার করে র্যাব।