মিথিলা আপনাকে বলছি...


রাফিয়াত রশিদ মিথিলা

ক’দিন ধরে মিডিয়াতে মিথিলা প্রসঙ্গ ভেসে বেড়াচ্ছে। কেউ পক্ষে-বিপক্ষে মতামত প্রদান করছে। যার মত সে প্রদান করতেই পারে, তানা হলে সমাজ একমুখী হতো। আমি ক্ষুদ্র মানুষ, যদিও আমার মতে কারো কিছু যায় আসেনা। তবে আমি একজন দর্শক হিসেবে কিছু বাস্তবতা শেয়ার করবো।

আমরা যখন বিখ্যাত (স্টার) হতে ব্যস্ত, তখন আমাদের মনে একবারও ধারনা আসেনা, যে মানুষগুলো আমাকে ভালোবাসবে, তারা কেবল নিজের খেয়েই আমাকে ভালোবাসবে। বিনিময়ে তাদের আমি কিছু দিতে পারিনা। হ্যা, আমি যদি বিনোদন কর্মী হই তাহলে মানুষকে আমি বিনোদন দিবো, এটা স্বাভাবিক; কিন্তু মানুষ আমাকে নেবে কেন? কেন সবার উপরে করে রাখবে আমাকে? আসলে এটাই একজন স্টারের প্রতি সাধারন মানুষের ভালোবাসা, এ ভালোবাসাই তাকে স্টার করে তোলে।

আপনি যখন একজন স্টার, আপনি ভুলে যান আপনার পেছনের স্মৃতি, আপনি ভুলে যান- কাল আপনাকে পূর্বের স্থানে ফিরে যেতে হতে পারে। প্রথম প্রথম একটা সেলফি/অটোগ্রাফ দেয়ার জন্য উৎসাহী থাকেন আপনি, পরে স্টার হয়ে গেলে নিজেকে রক্ষণ ভাগে নিয়ে যান। সাধারণদের বিরক্ত মনে করেন।

যাই হোক-এটা বাস্তবতা, মেনে নিতেই হবে। প্রসঙ্গ এটা ছিলনা। মিথিলার ব্যাক্তিগত ছবি প্রকাশের পর দেশের অন্য স্টারদের পাশাপাশি কালকাতার একজন নির্মাতা শ্রীজিৎ মুখার্জী এ নিয়ে কথা বললেন। তাকে নিয়ে কথা বলার যোগ্যতা আমার নেই। নেই মিথিলাকে নিয়েও বলার। আমি শুধু এটুকু বলবো, সাধারন মানুষের একজন স্টার নিয়ে কৌতুহল ‍থাকে/থাকবে, তার ভালো-মন্দ সব বিষয়েই। এমনটাতো হতে পারেনা, শুধু মাত্র ভাল দিকগুলো নিয়েই কৌতুহল থাকবে। যদি তেমন হয়, তাহলে আপনাকে পর্দাতেই ভুলে যাবে মানুষ, পর্দার বাইরে কোন কৌতুহল থাকবে না। আসলে সেটা হয় না।

আমরা সব সময় একটা মানুষের সম্মান রক্ষণশীল অবস্থায় রাখার চেষ্টা করবো। এরকম চিন্তা-চেতনা আমাদের হওয়া উটিত, কিন্তু হয়না, দুঃখ জনক। আমাদের মিডিয়াগুলোও কোন টপিকস পেলে হুমড়ি খেয়ে পড়ে, কোন লাগাম নেই। যদি একটু আচড় লাগে, বাদরের মতো টেনে দেখতে দেখতে বড় ক্ষত করে ফেলে।

মিথিলা ক্রাইম ব্রাঞ্চে অভিযোগ করেছেন, কিন্তু কার বিরুদ্ধে? দর্শকদের বিরুদ্ধে? নাকি যারা ছবি শেয়ার করেছে তাদের বিরুদ্ধে?

প্রশ্ন এখানে, আপনার ছবি বাইরের মানুষের কাছে যায় কিভাবে? হয় আপনি দিয়েছেন না হলে যার সাথে তুলেছেন সে দিয়েছে। যদি দিতেই পারেন শেয়ার হতে দোষ কোথায়? আপনার প্রাইভেসি রক্ষা করা আপনার দ্বায়ীত্ব, নাকি জেনে বুঝে নিজেই করিয়েছেন, হঠাৎ আলোচনায় আসার জন্য?

আপনাকে ভুলেগেলে চলবেনা, আপনি বিখ্যাত, আপনার প্রতি মানুষ চেয়ে থাকে। জীবনকে এমন ভাবে লাগামহীন করবেন না, যেটা উন্মুক্ত থাকে। স্বাভাবীক মানুষের মতো সব রকম অধিকার আপনারও রয়েছে। এর থেকে বেশি কিছুও আপনি করতে পারেন। আপনি কার সাথে জীবন কাটাবেন সেটাও আপনার ব্যপার। কিন্তু, উন্মুক্ত করবেন না। কৌতুহল থাকবেই...!

লেখক : মামুন মজুমদার, মুক্তকলাম।