নিউইয়র্কেই আক্রান্ত ৮৩ হাজারের বেশি, মৃত্যু ১ হাজার ৯৪১ জন

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা আক্রান্ত ২লাখ ছাড়াল, ক্যুমোর ঘাড়ে সব দোষ চাপাচ্ছেন ট্রাম্প


ক্যুমো-ট্রাম্প

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস নিয়ে গত ২৬ ফেব্রুয়ারিও এক ব্রিফিংয়ে এই রোগকে পাত্তা দেননি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেদিন করোনাকে এক প্রকার তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করে বলেছিলেন, এটা একটা ফ্লু, ফ্লুর মতো। শিগগির আমরা এ ফ্লু’র টিকা নিয়ে আসব। কিন্তু দিনে দিনে ট্রাম্পের সেই সুর পাল্টে গেছে। নিউইয়র্ক রাজ্যে করোনার কারণে বিপর্যয় দেখা দেয়ায় এখন সব দোষ গভর্নরের ঘাড়েই চাপাচ্ছেন ট্রাম্প। তিনি বলছেন, দেরিতে পদক্ষেপ নেয়ার কারণে এমন অবস্থায় পড়তে হয়েছে নিউইয়র্ককে।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) হোয়াইট হাউজের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত ব্রিফিংয়ে ট্রাম্প নিউইয়র্ক রাজ্যের গভর্নর এন্ড্রু ক্যুমোর ঘাড়ে দায় চাপিয়ে বলেন, ‘যেকোনো কারণেই হোক, নিউইয়র্ক দেরিতে পদক্ষেপ নিয়েছে। দেরিতে পদক্ষেপ নেয়ার ফল এখন দেখতে হচ্ছে আমাদের।’

পার্শ্ববর্তী রাজ্য নিউজার্সিও করোনা মোকাবিলার পদক্ষেপ দেরিতে নিয়েছে অভিযোগ তুলে প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘নিউজার্সিও দেরিতে শুরু করেছে। দুই গভর্নরই দারুণ কাজ করছেন... কিন্তু তারা খুব দেরিতে শুরু করেছেন।’

তবে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ওয়াশিংটন ও ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের পদক্ষেপের প্রশংসা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত ২ লাখ ২৮৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৪ হাজার ৩৯৪ জন।

কেবল নিউইয়র্কেই আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৮৩ হাজার ৭১২ জন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ৯৪১ জন। পার্শ্ববর্তী নিউজার্সিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১৮ হাজার ৬৯৬ জন। মারা গেছেন ২৬৭ জন।

ads