শক্ত হাতে বিক্ষোভ দমনের আহ্বান ট্রাম্পের


ট্রাম্পের হুমকি

কৃষ্ণাঙ্গ নাগরিক জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে বিক্ষোভকারীদের ওপর আরও কঠোর হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সোমবার (১ জুন) বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের গভর্নর ও আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক ভিডিও টেলিকনফারেন্সে তিনি বলেন,ওয়াশিংটনে আমরা এমন কিছু করতে যাচ্ছি যা মানুষ আগে দেখেনি।ওই কনফারেন্সের রেকর্ডিং হাতে পেয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান জানিয়েছে, সেসময় প্রেসিডেন্টের সঙ্গে অ্যাটর্নি জেনারেল বিল বার, প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

গত ২৫ মে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপলিস শহরে শ্বেতাঙ্গ পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ নাগরিক জর্জ ফ্লয়েড হত্যার ভিডিও প্রকাশ হয়ে পড়লে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভের জেরে ১৪টি অঙ্গরাজ্যে জারি করা হয়েছে কারফিউ। রাজধানী ওয়াশিংটনসহ অন্তত ১৫টি অঙ্গরাজ্যে ন্যাশনাল গার্ড সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। হোয়াইট হাউজ এলাকায়ও টানা বিক্ষোভের পাশাপাশি পুলিশ-বিক্ষোভকারী সংঘর্ষের ঘটনাও দেখা গেছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, ১৯৬৮ সালে মার্টিন লুথার কিংয়ের হত্যাকাণ্ডের পর যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে এমন জনরোষ আর কখনও চোখে পড়েনি। সোমবার টেলি কনফারেন্সে মার্কিন প্রেসিডেন্ট অভিযোগ করেন অনেক অঙ্গরাজ্যের গভর্নর বিক্ষোভ দমনে যথেষ্ট ভূমিকা নিচ্ছে না।

তিনি বলেন, আপনারা সময় নষ্ট করছেন, তারা আপনাদের মাড়িয়ে দিতে চাইছে আর আপনারা মনে যেন হচ্ছে ঝাঁকুনি দিতে চান। নিউইয়র্ক, ফিলাডেলফিয়া ও লস অ্যাঞ্জেলসের মতো ডেমোক্র্যাট গভর্নর এবং মেয়র শাসিত অঙ্গরাজ্য ও শহরগুলোর কর্তৃপক্ষের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তাদের আরও কঠোর হওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রয়োজনে ন্যাশনাল গার্ড মোতায়েনের প্রস্তাব দেন তিনি।

তবে মিনেসোটার ডেমোক্র্যাট গভর্নর টিম ওয়ালজের প্রশংসা করে ট্রাম্প বলেন, তিনি বিক্ষোভকারীদের বোলিং পিন এর মতো দ্রুত পরাস্ত করেছেন।নিউজার্সিতে আরেক ডেমোক্র্যাট ফিল মরফিও ভালো কাজকরেছেন বলে মন্তব্য করেন ট্রাম্প।

মিনেসোটা বিক্ষোভ দমনের পরীক্ষা ছিল মন্তব্য করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, আপনারা প্রথম ধাপ দেখেছেন। সেটি ছিল দুর্বল এবং করুণ আর এখন দ্বিতীয় ধাপে আপনাদের নিয়ন্ত্রণ নিতে হবে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট অভিযোগ করে আসছেন উগ্র বামপন্থীরাই বিক্ষোভ করছে।

আন্দোলনকারীদের তিনি ২০১১ সালের অকুপাই ওয়াল স্ট্রিট মুভমেন্টের বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে তুলনা করেছেন। জোর করে এসব বিক্ষোভকারীদের দমনের পক্ষেও মত দিয়ে আসছেন তিনি।

ads