নিউইয়র্কে ১৩ জুন পর্যন্ত ঘরে থাকার নির্দেশ


এন্ড্রু ক্যুমো

নিউইয়র্কে নগরের নাগরিকদের ঘরে থাকার আদেশ ১৩ জুন পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। রাজ্যের কিছু প্রান্তিক এলাকা ১৫ মে থেকে খুলে দেয়া শুরু করলেও ১৪ মে বৃহস্পতিবার রাজ্যে গভর্ণর এন্ড্রু ক্যুমো এ নিয়ে আরেকটি নির্বাহী আদেশ জারি করেছেন।

আদেশে নাগরিকদের ঘরে থাকার উপর আরোপিত বিধিনিষেধ সহ সবধরনের নির্দেশনাবলী ১৩ জুন পর্যন্ত  থাকবে বলে বলা হয়েছে।ভিন্ন কোন নির্বাহী আদেশে তা পরিবর্তন না হওয়া পর্যন্ত রাজ্যের সর্বত্র কড়াকড়ি অব্যাহত রাখা হবে। রাজ্যের প্রান্তিক এলাকার মধ্যে ফিঙ্গার লেক, সাউদার্ন টায়ার, মোহাক ভেলী, নর্থ কাউন্টি এসব এলাকা প্রথম ধাপের মত ১৫ থেকে খুলে দেয়ার অনুমতি দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালেও রাজ্য গভর্নর করোনা ভাইরাসে আগের ২৪ ঘণ্টায় নিউইয়র্কে ১৫৭ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছেন।

নিউইয়র্কে প্রথমবারের মত কোভিড-১৯ এর সাথে সম্পৃক্ত রহস্যজনক অসুস্থতা নিয়ে স্বাস্থসেবীদের একটি সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা প্রদান করেছে। নিউইয়র্কে ১১০জন অল্প বয়সীদের এ রহস্যজনক অসুস্থতা নিয়ে ব্যাপক তদন্ত শুরু হয়েছে। এমন অসুস্থতায় এরমধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। নিউইয়র্ক সিটিতে ১জন পাঁচ বছরের শিশু, ওয়েস্টচেস্টার কাউন্টিতে একজন সাত বছরের এবং সাফোক কাউন্টিতে একজন টিন এজারের মৃত্যুর কথা জানানো হয়েছে।

রাজ্যের গভর্ণর এন্ড্রু ক্যুমো বলেছেন , আমাদের চোখ খোলা রাখতে হবে। প্রতিদিন অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে এবং এ ভাইরাস নিয়ে নতুন নতুন বিষয় জানা যাচ্ছে।

তিনি বলেন, ১১০ টি এমন অসুস্থতা নিয়ে আমরা এর মধ্যে তদন্ত করলেও এ সংখ্যা বাড়বে বলে তিনি আশঙ্কা করেন। এ নতুন উপদ্রব সামাল দেয়ার জন্য পুরো আমেরিকার মধ্যে নিজেদের এগিয়ে থাকার প্রয়াসের কথা তিনি জানান।

ক্যুমো বলেন, সবাই বিষয়টি সম্পর্কে ভালো করে জানা উচিত। এতে শিশুদের, অসুস্থতার লক্ষণের উপর ভালো করে নজর রাখা সম্ভব হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

নিউইয়র্কের কোনো শিশুদের মধ্যে নীচের যেকোন উপসর্গ দেখা দিলেই পরিবার থেকে দ্রুত চিকিৎসা সেবা গ্রহণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

উপসর্গের মধ্যে রয়েছেঃ
পাঁচ দিনের বেশী জ্বর থাকা, পেটে মারাত্মক পীড়া , ডায়রিয়া , বমি, রক্ত বর্ণের চোখ, চামড়ায় ফুসকুড়ি ছাড়া চামড়ার রঙ বদলে যাওয়া , একদম শিশু বয়সীদের খাওয়ানোর সমস্যা , পানীয় পানে সমস্যা , শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে বা দ্রুত শ্বাস নিচ্ছে , বুক উঠানামা দ্রুত করছে বা বুকে ব্যথা অনুভূত হচ্ছে , খিটখিটে মেজাজ।

এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিসিজ কন্ট্রোল-সিডিসি স্বাস্থ্য সেবীদের কাছে জরুরি নির্দেশনা পাঠাচ্ছে বলেও জানানো হয়েছে।

ads