কাজিপুরে বালির পানিতে দুর্ভোগ পোহাচ্ছে শত পরিবার, ইউএনও’র হস্তক্ষেপ কামনা


বালির পানিতে

সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার মেঘাই হাটের নিকটে বালির পাহাড় গড়ছেন স্থানীয় বালুখেকোর দল। একটি ঘাট বালুর জন্যে ইজারা নিয়ে তিনটি তারা বালু তুলে রাখছেন। এতে করে বালুর নিংড়ানো পানিতে মেঘাই ওয়াপদা বাধ, হাট ও আশপাশের একশ পরিবার কয়েকদিন যাবৎ পানিবন্দী হয়ে পড়ে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সেখানে কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হানা দেন।

সরেজমিন গিয়ে জানা গেছে, মেঘাই গ্রামের আউয়াল মেম্বর একটি পয়েন্টে বালু উত্তোলনের জন্যে সরকারিভাবে ইজারা নেন। বর্তমানে তিনিসহ স্থানীয় রুবেল, আল আমিন যমুনা থেকে বালু তুলছেন। বালুর পরিমাণ এতো বেশি যে দূর থেকে দেখলে ছোটখাটো পাহাড় বলে মনে হবে। শর্ত ভঙ্গ করায় এর আগে কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বালু মহালে অভিযান চালিয়ে জরিমানাও করেছেন। কিছুদিন বন্ধ থাকার পর আবারও একই কায়দায় বালু উত্তোলন শুরু হয়। সম্প্রতি মেঘাই হাট এলাকায় বালুর পাহাড় নিংড়ানো পানিতে একশ পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়ে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দৃষ্টিগোচর করলে তিনি ত্বড়িত ব্যবস্থা নেন। পানি দ্রুত নিষ্কাষণের জন্যে সেখানে শ্যালো মেশিন বসিয়ে সেচের ব্যবস্থা করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদ হাসান সিদ্দিকী জানান, “বালু উত্তোলনের শর্ত ভঙ্গ করায় শমসের হাজীকে এই ঘটনায় আটক করি। পরে এমন ঘটনা আর ঘটবে না মর্মে মুচলেকা দেওয়ায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।”

এসএম/আওয়াজবিডি

ads