হবিগঞ্জ পৌরসভার জলাবদ্ধতা নিরসনের শহরে শুরু হয়েছে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান


উচ্ছেদ

হবিগঞ্জ পৌরসভার জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও পৌরপ্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে হবিগঞ্জ শহরে শুরু হয়েছে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান। মঙ্গলবার সকালে ঘাটিয়া বাজারে ড্রেনের উপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। পরে শহরের কালীগাছতলা এলাকার একাংশে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করার পর হবিগঞ্জ শহরের পইল রোডে শুরু হয় অবৈধ স্থাপনা অপসারনের কাজ।

পইল রোডে প্রায় ২৫ টি অবৈধ দোকানসহ শায়েস্তানগর এলাকার বড়ড্রেনের উপর ড্রেনসমূহ উচ্ছেদ করা হয়। উচ্ছেদকৃত দোকানগুলোর মধ্যে রয়েছে ফার্নিচার, স্বর্ণালংকার, ফলমুল, মুদিমাল, আইটিসহ অন্যান্য দোকান। হবিগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাখাওয়াত হোসেন রুবেল, সহকারী কমিশনার ভূমি মাসুদ রানা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্র্যাট ইয়াসিন আরাফাত রানার নেতৃত্বে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হয় সন্ধ্যার পর পর্যন্ত। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পৌরকাউন্সিলর মোঃ উম্মেদ আলী শামীম, মোঃ জাহির উদ্দিন, গৌতম কুমার রায়, পৌরসচিব মোঃ ফয়েজ উদ্দিন আহমেদসহ অন্যান্যরা।

উল্লেখ্য সোমবার হবিগঞ্জ পৌরসভায় হবিগঞ্জ-লাখাই-শায়েস্তাগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ আবু জাহিরের উপস্থিতিতে পৌরপরিষদের জরুরী সভায় শহরে জলাবদ্ধতায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারী সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সিদ্ধান্ত হয়। ওই সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবির মুরাদ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মোঃ নূরুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত মেয়র দীলিপ দাসসহ পৌর কাউন্সিলরবৃন্দ।