জিপিএ-৫ না পেয়ে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা


\আওয়াজবিডি

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় এসএসসিতে জিপিএ-৫ না পেয়ে আবির হোসেন চাঁদন (১৬) নামে এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে।

নিহত চাঁদন উপজেলার বাকতা ইউনিয়নের বাকতা গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে।

সে ফুলবাড়ীয়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার ৪.৯৪ পেয়ে এসএসসি পাশ করেন। চাঁদনের বাবা ইউসুফ আলী বরুরা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক বলে জানা গেছে।

রবিবার (৩১ মে) এসএসসির ফলাফল প্রকাশের পর চাঁদন তাঁর ফেসবুক Ā.S. Chadon নামক আইডিতে I’m faded, Thank you লিখে একা বাসায় কখন আত্মহত্যা করেছে কেউ বলতে পারে না। ধারণা করা হচ্ছে ফলাফল জানার পর কোনো এক সময় আত্মহত্যা করে।

পরে ওই দিন রাতে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

পুলিশ জানায়, জিপিএ-৫ না পেয়ে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন ভাড়া বাসায় প্যান্টের বেল্ট দিয়ে ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে।

এ সময় বাসায় কেউ ছিল না। সন্ধ্যায় তার বাবা ইউসুফ আলী ডাকাডাকি করলে ঘরের দরজা না খুললে দরজা ভেঙ্গে  ভেতরে গিয়ে দেখতে পায় সন্তানের ঝুলন্ত লাশ।

সহপাঠীদের ধারণা, ক্লাসের  ভালো ছাত্র হওয়ার পরও আশানুরূপ (জিপিএ-৫) ফলাফল না হওয়ায় আত্মহত্যা করতে পারে চাঁদন।

ফুলবাড়িয়া থানার ওসি আজিজুর রহমান বলেন, এসএসসিতে জিপিএ-৫ না পাওয়ায় আত্মহত্যা করতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

রেদওয়ানুল/আওয়াজবিডি

ads