অসহায় মানুষদের পাশে অভিনেত্রী শাহনূর


চিত্রনায়ীকা

করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করে যাচ্ছে সারাবিশ্ব। বাংলাদেশের মানুষও ভাইরাসের কারণে এখন ঘরবন্দী। দিনমজুররা পড়েছেন বিপাকে। ফুরিয়ে গেছে অনেকের ঘরের খাবার। এমন দুর্দিনে সেই সব দুস্থ মানুষদের সাহায্যে এগিয়ে আসছে সরকার এবং অনেক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। ব্যক্তি উদ্যোগেও চলছে সহায়তা কার্যক্রম। এগিয়ে আসছেন ঢাকাই সিনেমার তারকারাও। সেই কাতারে আছেন চিত্রনায়িকা শাহনূর৷

শোবিজেও কাজ নেই। বন্ধ হয়ে গেছে শুটিং সহ আনুষঙ্গিক কাজ। এ সময়ে মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন চিত্রনায়িকা শাহনূর। নিয়েছেন নানা উদ্যোগ। চিত্রনায়িকা শাহনূর মগবাজার এলাকায় কয়েকজনের মাঝে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন। বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে নিম্নআয়ের মানুষদের আর্থিক সহযোগিতা করছেন।

চিত্রনায়িকা শাহনূর এ প্রসঙ্গে বলেন, আমি দীর্ঘদিন ধরে সাধ্যমতো মানুষকে সহযোগিতা করে আসছি। করোনাভাইরাস প্রকোপে বাসায় বসে থাকলেও নিম্নআয়ের মানুষদের কাছে টাকা পাঠিয়ে সহায়তা করছি। যখন বুঝতে শিখেছি তখন থেকেই মানুষকে দান করতে ভালো লাগে। তিনি যোগ করে বলেন, গতকাল শিল্পী সমিতি থেকে উপহার হিসেবে খাদ্যসামগ্রী এসেছে। সেটি আমার পরিচিত একজন শিল্পীকে দিয়েছি। আজ নিজ হাতে আশে পাশের কয়েকজন নিম্ন আয়ের মানুষকে সাধ্যমতো সহায়তা করেছি। আমার বাসায় যেহেতু পর্যাপ্ত খাবার আছে, তাহলে কেন আমি আমার প্রতিবেশীকে দেব না? তা ছাড়া আমাদের দেশে যথেষ্ঠ খাবার আছে, মজুদ করে রাখার কিছু নেই। আমিও করিনি। খাবার ভাগাভাগি করে খাওয়ার শিক্ষা আমি পেয়েছি। শাহনূর মনে করেন দান করে দেখানো ঠিক নয়। তিনি বলেন, দান গ্রহীতার ছবি প্রকাশে আমি ইচ্ছুক নই। তবে আমার উদ্যোগ দেখে মানুষ যেন উৎসাহিত হয় সেজন্য আমি ছবি দিয়েছি। শাহনূর আরও জানান তার মা অসুস্থ বলে তিনি বাসার বাইরে বের হচ্ছেন না। বাসায়ই সময় দিচ্ছেন। ঘরের প্রয়োজনীয় কাজের পাশাপাশি নিজেকে সময় দিচ্ছেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন সহসাই পরিস্থিতির উন্নতি হবে।

প্রসঙ্গত, শাহনূরের ৬টি ছবির শুটিং চলমান ছিল। করোনাভাইরাসের প্রভাবে সেগুলোর শুটিং আপাতত স্থগিত আছে। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে দুটো স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন তার ‘মৌ মাল্টিমিডিয়া’র ব্যানারে।

এসএএন/আরএইচ/আওয়াজবিডি 

ads