ভারতীয় নাগরিককে জাতীয় পুরস্কার: ক্ষমা চেয়েছেন ‘ঢাকা অ্যাটাক’ প্রযোজক


জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের তালিকায় ভারতীয় নাগরিক?

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের নিয়ম অনুযায়ী কোনো বিদেশি নাগরিক এই স্বীকৃতি পাবেন না। কিন্তু বৃহস্পতিবার ঘোষিত ২০১৭ ও ২০১৮ সালের পুরস্কারের প্রজ্ঞাপনে এক ভারতীয় নাগরিকের নাম থাকায় সমালোচনার ঝড় উঠে। এই ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছে সিনেমা সংশ্লিষ্টরা।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে ২০১৭ সালের ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রের জন্য ‘সেরা সম্পাদক’ হিসেবে মো. কালামের নাম উল্লেখ করা হয়।

পুরস্কারের আবেদনে ‘ভুল করে’ বাংলাদেশি পরিচয় দিয়ে ভারতীয় নাগরিকের নাম পাঠানোর কথা স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে জুরি বোর্ডকে আলাদাভাবে চিঠি দিয়েছেন ‘ঢাকা অ্যাটাক’-এর প্রযোজক সানী সানোয়ার ও পরিবেশক জাহিদ হাসান অভি।

চিঠিতে অভি লেখেন, “ভুলবশত কালামের নামটি বাংলাদেশি হিসেবে পাঠিয়েছিলাম আমরা। বিষয়টি দৃষ্টিগোচরে আসার পর ক্ষমা চেয়ে চিঠিটি পাঠিয়েছি।”

আরও বলা হয়. “প্রযোজক স্বাক্ষরিত প্রত্যয়নে ২০১৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রটিতে মো. কালাম সম্পাদনার কাজ করেন, যিনি বাংলাদেশি নন। কিন্তু ভুলবশত তার নাম লিপিবদ্ধ হয় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৭ এর আবেদনে। অনিচ্ছাকৃত এই ভুলের জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।”

আরও লেখেন, “শুধুমাত্র বাংলাদেশের ঢাকার ঠিকানা তার নামের পাশে থাকার কারণে এই ভুলের সৃষ্টি হয়েছে। আমরা আবারও আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি এবং এ জন্যে সার্বিক সহযোগিতা করবার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি।"

২০১৭ সালে সেরা ছবি হয়েছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’। এ ছাড়া সেরা অভিনেতা, শব্দগ্রাহক ও মেকআপ বিভাগে পুরস্কার পায়।