একটি আনন্দের সংবাদের আগেই আর একটি মৃত্যুর সংবাদ


ওলি

একটি আনন্দের সংবাদের আগেই আর একটি মৃত্যুর সংবাদ। এমন ঘটনাই ঘটেছে একটি বেসরকারি ক্লিনিকের তিনতলা ভবনের দোতালা থেকে পড়ে এক শিশুর মৃত্যু খবরে। বলছি বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বরিশাল পয়সার হাট আঞ্চলিক সড়ক ঘ্যাসা মৌরী ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের অবহেলায় ওলি নামের এক তিন বছরের শিশু খেলার সময় তিনতলা ভবনের দোতালার বেলকনি থেকে পড়ে যায়। এ সময় আরও দুই শিশু তার সাথে খেলা করছিলো।

ওলি যখন নিচে পড়ে যায় ওই দুই শিশুও তাকে উদ্ধার করার জন্য নিচে এসে চিৎকার করলে মৌরি ক্লিনিকের নিচে মুদি দোকানদার মোঃ আকবার খান ওলিকে রক্তমাখা অবস্থায় উদ্ধার করে ক্লিনিকের ভিতরে নিয়ে যায় শিশুর অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে তাকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় ওখান থেকেও থাকে রেফার করে দেয় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে শিশুর মৃত্যু হয়।

নিহত ওলি পার্শ্ববর্তী উজিরপুর উপজেলার রিয়াজ হোসেনর পুত্র। ওলি তার খালার সিজার হবে তাই তার মায়ের সাথে মৌরি ক্লিনিকে দেখতে আসেন।

ওই শিশুর খালু মোঃ সোহেল হাওলাদার পিতা আঃ রাজ্জাক হাওলাদার জানান যে, ওলির খালার সিজারের সময় মৌরি ক্লিনিকে আমরা সবাই ব্যস্ত থাকায় ওলির খোঁজ নিতে পারিনি পরে ওলির মা ওলিকে খোঁজা খুজি করে জানতে পারে তার ছেলে ক্লিনিকের বেলকনি না থাকায় তিনতলা ক্লিনিকের দোতালা থেকে পড়ে যায়।

এ বিষয় মৌরি ক্লিনিকের ম্যানেজার মোঃ লিটনকে সরজমিনে না পেয়ে তার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান যে, আমাদের ক্লিনিকের কাজ চলমান থাকায় গতকাল আড়াইটার সময় র্যালিং না থাকায় ওলি পড়ে যায় তাৎখনিক আমি আহত ওলিকে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমম্পেক্সে নিয়ে যাই সেখান থেকে ফেরৎ দেন পরে বরিশাল শের-ই-বাংলা হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার ওলিকে মৃত ঘোষনা করেন।

এ বিষয়ে গৌরনদী মডেল থানার ওসি তদন্ত মোঃ মাহাবুবুর রহমান জানান, মৌরি ক্লিনিকের তিনতলা ভবনের দোতালার বেলকনি থেকে পড়ে ওলির মৃত্যুর বিষয়ে আমরা শুনেছি তবে এখনও কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি পেলে আইনগত ব্যবস্থা নিব।

ads