ছুটির দিনে ফাইল সরাতে গিয়ে ডিজি সামীম আফজাল ধরা, উত্তপ্ত ইফা


সামীম

ছুটির দিনে গুরুত্বপূর্ণ ফাইল সরাতে গিয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের তোপের মুখে পড়েছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল।

তবে ইফার সচিবের বাধার মুখে ফাইল ফেরত দিতে বাধ্য হন তিনি। এ সময় ডিজিকে ঘেরাও করে রাখেন ইফার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হস্তক্ষেপে ডিজি সামীম মোহাম্মদ আফজালকে উদ্ধার করা হয়।

শনিবার সকালে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের আগারগাঁও কার্যালয়ে এমন ঘটনা ঘটে।

নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র জানায়, শনিবার সকালে ডিজি পদত্যাগপত্র জমা দেবেন বলে ইফার সচিব কাজী নূরুল ইসলামকে অফিসে ডেকে পাঠান। খবর পেয়ে বন্ধের দিনেও অসংখ্য কর্মকর্তা-কর্মচারী আগারগাঁও ইফার কার্যালয়ে ভিড় করেন।

এরই মধ্যে ডিজির আস্থাভাজন একজন পরিচালক কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফাইল গাড়িতে করে অফিসের বাইরে নিতে চাইলে বাধা দেন ইফার সচিব।

এ সময় ডিজির সঙ্গে সচিবের উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়। পরে ওইসব ফাইল জব্দ করে নিজ জিম্মায় নেন ইফার সচিব। এ সময় ডিজিকে ঘেরাও করে রাখেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য নিয়োগ করা হয়। পরে পরিস্থিতি সামাল দিতে সেখানে ছুটে যান ইফার বোর্ড অব গভর্নরসের সদস্য মিজবাহুর রহমান চৌধুরী।

তার মধ্যস্থতায় ফাইল রেখে পদত্যাগ ছাড়াই অফিস ত্যাগ করেন ডিজি সামীম মোহাম্মদ আফজাল।

তবে অপর একটি সূত্র জানায়, ডিজি পদত্যাগপত্রে সই করে ইতিমধ্যে সচিবের কাছে দিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ইফার সচিব কাজী নূরুল ইসলাম বলেন, ‘ডিজি মহোদয় পদত্যাগ করার কথা ছিল। এ সংবাদ পেয়ে কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারী বন্ধের দিনেও অফিসে আসেন। কিছু ফাইল উনি গাড়িতে তুলেছিলেন। কিন্তু উপরের নির্দেশ থাকায় ফাইলগুলো আমার জিম্মায় নিয়েছি। এরপর তিনি (ডিজি) পদত্যাগ না করে মত পরিবর্তন করেন। অফিস খোলার দিনে পদত্যাগপত্র দেবেন বলেন জানিয়েছেন। ’

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ইফার বোর্ড অব গভর্নরসের সদস্য মিজবাহুর রহমান চৌধুরী বলেন, শনিবার ইফায় একটা অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর কাছে খবর যায় ডিজি কাউকে না জানিয়ে অফিসের গুরুত্বপূর্ণ ফাইল নিয়ে যাচ্ছেন। এটা শুনে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী তাকে (মিজবাহুর) ঘটনাস্থলে পাঠান। তিনি সেখানে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পান। একজন পরিচালক বন্ধের দিনে তার গাড়িতে করে ফাইল নিতে চাইলে সচিব সেই ফাইল জব্দ করে নিজ জিম্মায় নেন। যা সন্দেহজনক। ইফার ডিজিকে অবিলম্বে পদত্যাগপত্র দেযার পরামর্শ দিয়েছেন বলেও জানান মিজবাহুর রহমান চৌধুরী।

প্রসঙ্গত, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের গুরুত্বপূর্ণ পিলার গায়েবের ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে প্রতিষ্ঠানটি। বরখাস্ত, পাল্টা বরখাস্তের নোটিশ দেয়ার মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক (ডিজি) সামীম মোহাম্মদ আফজালের পদত্যাগের গুঞ্জন উঠেছে।

আজ-কালের মধ্যে তিনি পদত্যাগ করতে পারেন বলে একাধিক সূত্র আভাস দিয়েছে।

Loading...