ব্যায়াম শেখানোর নামে ছাত্রীদের কোলে বসিয়ে যৌন হেনস্থা


যৌন হেনস্থা

ব্যায়াম শেখানোর নামে দিনের পর দিন ধরে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ উঠল শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুরের এগরায় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

এগরার উত্তর তাজপুর জুনিয়র বেসিক স্কুল। সেখানেই ব্যায়াম শেখান মৃণালকান্তি দাস। অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে যোগাসন শেখানোর নামে ছাত্রীদের সঙ্গে যৌন হেনস্থা করছেন তিনি। ব্যায়াম শেখানোর নামে ছাত্রীদেরকে কোলে বসান অভিযুক্ত শিক্ষক। নানাভাবে তাদের যৌন হেনস্থা করা হয়। দিনের পর দিন ধরে স্কুলের মধ্যেই চলছে এ জিনিস।

নির্যাতিতা ছাত্রীরা বাড়িতে সবকথা জানালে পরই সামনে আসে ঘটনাটি। এরপরই এদিন সকাল থেকে স্কুলে গিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন অভিভাবক-অভিভাবিকারা। অভিযুক্ত শিক্ষকের গ্রেফতারির দাবি তুলেছেন তাঁরা। বিক্ষোভের খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে আসে এগরা থানার পুলিস। এই ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে।

অভিযুক্ত শিক্ষকের দাবি তাঁর নামে মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে। তাঁকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

রেদওয়ানুল/আওয়াজবিডি