চীনে করোনাভাইরাসে মৃত বেড়ে ১৪৮৩, আক্রান্ত ৬৫ হাজার

করোনাভাইরাস

চীনের  ভয়াবহ কভিড-১৯ ভাইরাসে নতুন করে ১১৬ জন মারা গেছে। যারা সবাই ভাইরাসটির উৎপত্তিস্থল হুবেই প্রদেশের বাসিন্দা। বৃহস্পতিবার মধ্যরাত পর্যন্ত ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা এক হাজার ৪৮৩ জন।

বিবিসি জানায়, নতুন করে আক্রান্ত হওয়া ৪ হাজার ৮২৩ জনও হুবেই এর বাসিন্দা।

এখন পর্যন্ত প্রদেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৫১ হাজার ৯৮৬ আর পুরো দেশের হিসেবে ৬৫ হাজার।

গত বছরের শেষের দিকে হুবেই এর রাজধানী শহর উহান থেকে মরণঘাতী ভাইরাসটি গোটা চীনে ছড়িয়ে পড়ে। চীনের বাইরে অন্তত ২৫টি দেশে ভাইরাসটি হানা দেয়। এমনকি বিমান, প্রমোদতরীসহ সবধরণের বড় যানবাহনে ছড়িয়ে পড়ে কভিড-১৯।  

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতদের দুজন ছাড়া সবাই চীনের মূল ভূখণ্ডেই মারা যান। বাকি দুজন মারা যান হংকং এবং ফিলিপাইনে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিওএইচও) ভাইরাসটিকে বিশ্বের জন্য মারাত্মক হুমকি হিসেবে চিহ্নিত করেছে। সংস্থাটির প্রধান টেডরস আধানম গোবিয়াসেস বলেন, ‘যে কোনো সন্ত্রাসী কার্যক্রম থেকে এই ভাইরাস আরও বেশি শক্তিশালী পরিণতি ঘটাতে পারে। ’

এত দিন পর্যন্ত নতুন করোনাভাইরাসটির কোনো নাম ছিল না। তবে গত মঙ্গলবার ডব্লিউএইচও এর নাম দেয় কোভিড-১৯।   করোনার কো, ভাইরাসের ভি, ডিজিজের ডি ও উৎপত্তিকাল ২০১৯-এর ১৯ মিলে হয়েছে নতুন এই রোগের নাম।

করোনাভাইরাস শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত সংক্রমণ। এই রোগের কোনো প্রতিষেধক এবং ভ্যাকসিন নেই। মৃতদের অধিকাংশই বয়স্ক যাদের আগে থেকেই শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত জটিলতা ছিল।

সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়া এই রোগের লক্ষণ হলো- শুকনো কাশির পর জ্বর আসে। সপ্তাহখানেক পর শ্বাস-প্রশ্বাস কমে যায়। এরপর আক্রান্তদের মধ্যে কিছু লোককে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন দেখা দেয়। প্রতি চারজনের একজনের অবস্থা খুবই খারাপ হয়।

অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/oeazq8
ads