চির নিদ্রায় শায়িত হলেন মাহফুজ উল্লাহ

১১১১
মাহফুজ

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন প্রখ্যাত সাংবাদিক লেখক গবেষক মাহফুজ উল্লাহ। মিরপুরের শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় তাকে দাফন করা হয়।
শোকে স্তব্ধ পরিবারের সদস্যদের মধ্যে দাফনের সময়ে মরহুমের বড় ভাই মাহবুব উল্লাহ, মরহুমের স্ত্রী, এক ছেলে, দুই মেয়েসহ আত্মীয়স্বজনেরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গতকাল বাদ আসর জাতীয় প্রেস ক্লাবে মরহুমের দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যরিস্টার মওদুদ আহমদ, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি এমাজউদ্দীন আহমদ, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, ভাসানী অনুসারী পরিষদের ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, নজরুল ইসলাম খান, সিনিয়র নেতা আব্দুল্লাহ আল নোমান, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, ডা: এ জেড এম জাহিদ হোসেন, মো: শাজাহান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, মজিবুর রহমান সরোয়ার, ইমরান সালেহ প্রিন্স, গাজী মাজহারুল আনোয়ার, ড. মামুন, অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, জাতীয় পার্টির (জাফর) চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দার, ন্যাপ-ভাসানীর চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ, শফিকুর রহমান এমপি, সাংবাদিক নেতা রুহুল আমিন গাজী, এম আব্দুল্লাহ, শাবান মাহমুদ, কাদের গণি চৌধুরী, শহিদুল ইসলাম, সোহেল হায়দার চৌধুরী, জাতীয় প্রেস ক্লাব সভাপতি সাইফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, আব্দুল হাই শিকদার, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ইলিয়াস হোসেন, বিকল্পধারার শমসের মবিন চৌধুরী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাইফুল হক, এলডিপির শাহাদাত হোসেন সেলিম, জাগপার খন্দকার লুৎফর রহমান, স্বাধীনতা ফোরামের আবু নাসের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, জাতীয় দলের সৈয়দ এহসানুল হুদা, গণফোরামের রফিকুল ইসলাম পথিক, নঈম জাহাঙ্গীর, ফকির আলমগীরসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার বিশিষ্টজনেরা অংশ নেন।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ সময় বলেন, মাহফুজ উল্লাহ এ দেশের যে কয়জন প্রথিতযশা সাংবাদিক তাদের মধ্যে নিঃসন্দেহে অন্যতম। অসাধারণ একটা বন্ধুত্বপূর্ণ মানুষ, ব্যক্তিত্বসম্পন্ন মানুষ। যিনি সাংবাদিকতাকে শুধু পেশা হিসেবে নেননি নেশা হিসেবে নিয়েছিলেন।
প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম বলেন, মাহফুজ উল্লাহ সময়ের অগ্রগামী লেখক সাহিত্যিক। ওনাকে হারানোর যে অভাব তা কোনোদিনও পূরণ হবেনা। তিনি দল-মত নির্বিশেষে সবাইকে সমানভাবে ভালোবাসতেন।
বড় ভাই অর্থনীতিবিদ মাহবুবউল্লাহ বলেন, মাহফুজুল্লাহ অত্যন্ত প্রতিভাবান ছিল। আপনারা সাক্ষ্য দেন তিনি কেমন মানুষ ছিলেন। আপনারা দোয়া করবেন তাকে যেন আল্লাহ জান্নাতুল ফেরদৌস নসিব করেন।
ছেলে মোস্তফা হাবিব অন্তু বলেন, আমার আব্বার কথায় ও কাজে যদি কেউ কষ্ট পেয়ে থাকেন তবে নিজগুণে তাকে ক্ষমা করবেন। পয় মে বাবার কুলখানি এই প্রেস ক্লাবেই হবে, আশা করি আপনারা সেখানে অংশগ্রহণ করবেন।
প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকসহ রাজনীতিবিদ ও পেশাজীবীরা পুস্পস্তবক অর্পণ করেও মরহুমের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। জাতীয় প্রেস ক্লাব, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি, নোয়াখালী সাংবাদিক ফোরাম, জাতীয় প্রেস ক্লাব কর্মচারী ইউনিয়ন, ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, বিএনপি, জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর), নাগরিক ঐক্য, বিপ্লবী ওয়াকার্স পার্টি, স্বাধীনতা ফোরাম, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও পেশাজীবী সংগঠন।

এর আগে দুপুরে গ্রিন রোডের মসজিদে মাহফুজউল্লাহর প্রথম নামাজে জানাজায় বিএনপির নেতা আবদুল আউয়াল মিন্টু, আবদুল কাইয়ুম, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, বাবুল আহমেদ, শায়রুল কবির খানসহ শিক্ষক-সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক, আইনজীবীসহ স্থানীয়রা অংশ নেন।

গত শনিবার বামরুনগ্রাদ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মাহফুজ উল্লাহ।
১ মে মিলাদ মাহফিল: পরিবারের পক্ষ থেকে মাহফুজ উল্লাহ স্মরণে আগামী ১ মে বাদ আসর জাতীয় প্রেস ক্লাবে মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। এতে সবাইকে অংশ নেয়ার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন পরিবারের পক্ষ থেকে।

রাবি সাদা দল ও লেখক ফোরামের শোক
রাবি সংবাদদাতা জানান, বিশিষ্ট সাংবাদিক, গবেষক মাহফুজ উল্লাহর ইন্তেকালে গভীর শোক এবং তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী শিক্ষক গ্রুপ (সাদা দল)। শনিবার সন্ধ্যায় সাদা দলের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোহা: এনামুল হক এক বিবৃতিতে এ শোক প্রকাশ করেন।

এদিকে একইসাথে রাজশাহী জাতীয়তাবাদী লেখক ফোরামের সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কাসেম এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. ইফতিখারুল আলম মাসউদ স্বাক্ষরিত এক বিবৃৃতিতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়।

মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারকে ধৈর্য ধারণের কথা উল্লেখ করে উভয় বিবৃতিতে করা হয়, মাহফুজ উল্লাহর ইন্তেকালে জাতি একজন অকুতোভয় দিকনির্দেশককে হারাল। যিনি অসাধারণ বিশ্লেষণধর্মী আলোচনা ও রচনার মাধ্যমে আমৃত্যু জাতিকে সঠিক নির্দেশনা দিয়ে গেছেন।
সাদা দলের বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারীরা হচ্ছেন অধ্যাপক ড. সি এম মোস্তফা, অধ্যাপক ড. কে বি এম মাহবুবুর রহমান, অধ্যাপক ড. মো: শামসুল আলম সরকার, অধ্যাপক ড. ময়েজুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. মো: আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক ড. এ বি এম শাহজাহান, অধ্যাপক ড. মো: সাইফুল ইসলাম ফারুকী, অধ্যাপক ড. মো: বেলাল হোসেন, অধ্যাপক ড. ফজলুর রহমান, অধ্যাপক ড. ফখরুল ইসলাম, প্রফেসর ড. মো: ফরিদুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. ইফতিখারুল আলম মাসউদ, অধ্যাপক ড. মো: শামসুজ্জোহা এছামী, অধ্যাপক ড. মো: আব্দুল আলীম প্রমুখ।


অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/oeazq8
mujib_100
ads
আমাদের ফেসবুক পেজ
সংবাদ আর্কাইভ