যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে হেলাল খান

শীগ্রই যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের কমিটি ঘোষণা করা হবে

যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী
ছবি: আওয়াজবিডি

ধর্ষণ-গুম-খুনের কবল থেকে বাংলাদেশকে রক্ষায় প্রবাস থেকে দুর্বার আন্দোলনের সংকল্প এবং বেগম খালেদা জিয়ার স্থায়ী মুক্তি ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সকল মামলা বিনাশর্তে প্রত্যাহারের দাবিতে নিউইয়র্কে ২৬ অক্টোবর সোমবার যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়।

যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের উদ্যোগে করোনার পরিপ্রেক্ষিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রাকৃতিক দুর্যোগ সত্বেও বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী অংশ নেন দু’পর্বের এ অনুষ্ঠানে।

প্রথম পর্বে জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় বেলুন উড়িয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় যুবদলের নেতা এম এ বাতিন। এ সময় পাশে ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জাসাসের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক হেলাল খান, জাসাসের আন্তর্জাতিক সম্পাদক আলহাজ্ব আবু তাহের, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল পাশা বাবুল, যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি আলহাজ্ব বাবরউদ্দিন, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতা আলহাজ্ব মাহফুজুল মাওলা নান্নু, মোশারফ হোসেন সবুজ ও এম এ সবুৃর, ছাত্রদলের সেক্রেটারি মাজহারুল ইসলাম জনি প্রমুখ।

সভাপতিত্ব করেন প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন কমিটির আহবায়ক যুবনেতা আতিকুল হক আহাদ এবং যৌথভাবে পরিচালনা করেন সদস্য-সচিব সোহরাব হোসেন ও প্রধান সমন্বয়কারি বদিউল আলম।

বৃষ্টির কারণে দ্বিতীয় পর্বে ‘আন্দোলন-সংগ্রাম আর গৌরবের ৪২ বছর’ শীর্ষক আলোচনা সভা হয় জ্যাকসন হাইটসে ইটজি চায়নিজ রেস্টুরেন্টে। এ সময় সমবেত নেতা-কর্মীরা দেড় দশক আগে গঠিত যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের কমিটি ভেঙে দিয়ে সময়ের পরিক্ষীত নেতা-কর্মীর সমন্বয়ে নয়া কমিটি গঠনের দাবি জানান।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা হেলাল খান বলেন, ‘বাংলাদেশের গণতন্ত্র আজ বিপন্ন, মানুষের নিরাপত্তা নেই, ধর্ষণ-খুন-রাহাজানি নিত্য-নৈমিত্তিক ব্যাপারে পরিণত হয়েছে। অবৈধভাবে ক্ষমতায় বসা সরকারী দলের লোকজনের কাছে গোটা বাংলাদেশ আজ জিম্মি। এহেন অবস্থার অবসানে সুশৃঙ্খল আন্দোলনের বিকল্প নেই। নব্বইয়ের স্বৈরাচারি হটাও আন্দোলনের ন্যায় যুবসমাজকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সে আহবানেই জাতীয়তাবাদী যুবদল তার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করছে।’


তিনি বলেন, “এ প্রবাস থেকেও আন্দোলনের ঢেউ তুলতে হবে আন্তর্জাতিক জনমত সুসংহত করতে। ১/১১ পরবর্তী সময়ের মত মার্কিন কংগ্রেসকে বাংলাদেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে এগিয়ে যাবার ক্ষেত্র তৈরি করতে হবে বিএনপি নেতা-কর্মীদেরকেই।

“বিএনপি ও তার অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনকে তছনছ করার মতলবে দেশ ও প্রবাসে বহুমুখী ষড়যন্ত্র চলছে। এ অবস্থায় শহীদ জিয়ার আদর্শে উজ্জীবিত এবং দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে সবার উচিত যে কোন ত্যাগের বিনিময়ে ঐক্যবদ্ধ থাকা।”

হেলাল খান বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির ত্যাগী নেতারা যেভাবে আন্দোলন সংগ্ৰাম করছে শীগ্রই তাদের মূল্যায়ন করে যুবদলের কমিটি ঘোষণা করবে।ইতোমধ্যে বিএনপির হাইকমান্ড কাজ করছে। 

যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আশরাফউদ্দিন ঠাকুরের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা যুবনেতা এম এ বাতিন বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের নতুন কমিটি হলেই প্রবাস থেকে আন্দোলন সূচনা করা সহজ হবে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল পাশা বাবুল বলেন, ‘এখন দলাদলির সময় নয়। গণতন্ত্রের মা বেগম খালেদা জিয়াকে স্থায়ীভাবে মুক্তি ব্যতিত বাংলাদেশ স্বৈরাচার মুক্ত হবে না। সেজন্যে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।’

বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি আলহাজ্ব বাবরউদ্দিন, যুক্তরাষ্ট্র জাসাসের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় জাসাসের আন্তর্জাতিক সম্পাদক আলহাজ্ব আবু তাহের, সেক্রেটারি কাওসার আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা আলহাজ্ব মাহফুজুল মাওলা নান্নু, মোশারফ হোসেন সবুজ, মাকসুদ এইচ চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রদলের সেক্রেটারি মাজহারুল ইসলাম জনি, শাহাদৎ হোসেন রাজু প্রমুখ। তারা সকলেই বাংলাদেশ থেকে লুটেরা সরকার হটাতে সকল গণতান্ত্রিক শক্তির ঐক্য কামনা করেন।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে বাংলাদেশ থেকে টেলিফোন হাইকমান্ড থেকে বিশেষ শুভেচ্ছা বার্তা দেন যুবদলের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক জনাব,সুলতান সালাউদ্দিন টুকু।তিনি করোনা, ঝড়-বৃষ্টির মধ্যেও এত সুন্দর একটি অনুষ্ঠান করার জন্য সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়েছ আহমেদ কর্তৃক পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের পর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এ আলোচনায় নেতৃবৃন্দের মধ্যে আরও অংশ নেন ইঞ্জিনিয়ার সায়েম রহমান, হুমায়ূন কবীর পলাশ, জাহাঙ্গির সোহরাওয়ার্দি, আনোয়ার হোসেন, নাসির উদ্দিন, সিদ্দিক হোসেন রুবেল, সুমন রহমান, মোহাম্মদ মান্নান, মঞ্জুর মোর্শেদ, মেহরাব রাজা চৌধুরী, মনসুর আহমেদ শাওন, রুহেলুজ্জামান চৌধুরী, ফারহান আহমেদ, ইকবাল খান গোফরান বাহার প্রমুখ।


শাহ আহমদ
শাহ আহমদ
https://www.awaazbd.net/author/awaaz-usa

শাহ আহমদ বাংলাদেশের সিলেট বিভাগের মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়ায় জন্মগ্রহন করেন। শিক্ষা জীবনের শুরু ঢাকার সানরাইজ প্রি ক্যাডেট এন্ড কলেজে। তারপর ২০০৪ সালে কুলাউড়ার জালালাবাদ হাইস্কুল থেকে এসএসসি, ২০০৬ সালে মদন মোহন কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। ২০০৭ সালে সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ইংরেজি অনার্সে ভর্তি হন।এরপর ইনফরমেশন টেকনোলজিতে পড়ালেখার জন্য লন্ডনে পাড়ি জমান এবং ক্রাউন ইন্টারন্যাশনাল কলেজে ব্যাচেলর শেষ করেন। বর্তমানে সপরিবারের যুক্তরাস্ট্রে বসবাসরত শাহ আহমদ, ছাত্রজীবন থেকেই সাহিত্য ও সৃজনশীল সবধরনের কাজের সাথে জড়িত ছিলেন। ২০১৬ সাল থেকে আওয়াজবিডি ও সাপ্তাহিক আওয়াজবিডির প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশের দায়িত্ব পালন করছেন।শাহ আহমদ বাংলাদেশ ডন-এর প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক।

mujib_100
ads
আমাদের ফেসবুক পেজ
সংবাদ আর্কাইভ