বাংলাদেশের ফিল্ম সুপারস্টার খুঁজলে হিরো আলমকে দেখাচ্ছে গুগল

হিরো আলম

গুগলে বাংলাদেশের ফিল্ম সুপারস্টার সার্চ করতে গেলে হিরো আলমকে নিয়ে তৈরি করা দুটি কনটেন্ট প্রথমে দেখা যাচ্ছে। অবাক করার বিষয় হলো এই দুটির একটিও হিরো আলমের পেজ কিংবা ইউটিউব চ্যানেল থেকে পোস্ট করা হয়নি।

রবিবার গুগলে ‘Bangladesh Film Superstar’ লিখে সার্চ দিলে নিউজপয়েন্টটিভি নামের একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে হিরো আলমকে নিয়ে তৈরি করা ভিডিও প্রথমে দেখা গেছে। ২০১৬ সালের ১৫ ডিসেম্বর ভিডিওটি পোস্ট করা হয়। এখন পর্যন্ত সাড়ে পাঁচ লাখের বেশিবার ভিউ হয়েছে।

চ্যানেলটির অ্যাবাউটে ‘ভারত সরকারের ডিজিটাল কনটেন্ট এজেন্সি’ লেখা আছে। দ্বিতীয় ভিডিও’র লোকেশনও ভারতে। খুশ বায়ারওয়া নামের এক যুবকের ব্যক্তিগত চ্যানেল থেকে ভিডিওটি পোস্ট করা। বাংলায়ও প্রায় একই অবস্থা।

‘বাংলাদেশি সুপারস্টার’ লিখে সার্চ দিলে ভিডিও অপশনে হিরো আলমকে নিয়ে তৈরি করা কনটেন্ট সবার আগে দেখা যাচ্ছে। আর বাঁদিকে আসছে সাকিব খানের উইকিপিডিয়ার পেজ।

মিউজিক ভিডিও বানাতে বানাতে অনলাইন জগতে প্রবেশ করে শুরুতে হাসির খোরাক জোগান বগুড়ার ছেলে হিরো আলম। অনেক সমালোচনা হজম করেও এই জগৎ ছাড়েননি তিনি; বরং দিনে দিনে ইউটিউব-ফেইসবুকের ‘রাজা’ হয়েছেন। দিনকে দিন বাড়ছে তার ফলোয়ার এবং ভিউর সংখ্যা। সার্চিংয়ের হিসাবে বলিউড কিংদের একজন সালমান খানকেও একবার পেছনে ফেলেন তিনি!

বগুড়া সদরের এরুলিয়া গ্রামে একসময় সিডি বিক্রি করা আলম এখন ঢাকায় বসত গড়েছেন। সেই শুরু থেকে তিনি স্বঘোষিত ‘হিরো’। তার অঙ্গভঙ্গি মানুষকে হাসালেও আলম নিজেকে কৌতুক শিল্পী পরিচয় দেন না। তাই ‘হিরো’ শব্দটি অনেকটা যত্ন করে রেখে দিয়েছেন নামের আগে।হিরো আলম সম্প্রতি তার ছবি মুক্তি দিয়েছেন।

গুগলের তথ্য বলছে, ছবিটি প্রকাশের পর গত সাতদিনে অন্তর্জালে তার আধিপত্য বেড়েছে।গুগলের ফিল্টার এমনই। যার প্রতি মানুষের আগ্রহ বেশি থাকবে, তাকেই আগে দেখাবে। এই ধরনের প্রতিষ্ঠান প্রায়ই বলে থাকে, তারা ব্যবহারকারীদের আগ্রহকে গুরুত্ব দিয়ে ব্যবসা করে।

এসএম/আওয়াজবিডি 


অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/awaazbdonlinenews

অনলাইন ডেস্ক

mujib_100
ads
আমাদের ফেসবুক পেজ
সংবাদ আর্কাইভ