সিভি, রেজ্যুমে ও কভার লেটার: পার্থক্য কী?

সিভি

সিভি, রেজ্যুমে ও কভার লেটার- চাকরির আবেদন করতে গিয়ে সবাই এ বিষয়গুলোর সঙ্গে পরিচিত হয়। অনেকে তিনটি বিষয়কেই এক করে ফেলেন, যদিও উদ্দেশ্য, আকার ও গঠনের দিক দিয়ে এগুলোর মধ্যে কিছু পার্থক্য রয়েছে।

যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপজুড়ে সিভির চল বেশি। তবে যুক্তরাষ্ট্রে রেজ্যুমের প্রাধান্য দেখা যায়। আবার আমাদের দেশে সিভি-রেজ্যুমে একই অর্থেও ব্যবহৃত হয়। এর পরেও সিভি, রেজ্যুমে ও কভার লেটারের মধ্যে কিছু পার্থক্য আছে। আসুন সে সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

সিভি 

সিভি বা Curriculum Vitae- এ শব্দটি এসেছে ল্যাটিন ভাষা থেকে। এর অর্থ হচ্ছে জীবনের পথ। জীবন সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য এখানে প্রাধান্য পায়। এর মধ্যে থাকে ক্যারিয়ার নিয়ে আপনার লক্ষ্য, শিক্ষা, অর্জন, দক্ষতা, কাজের অভিজ্ঞতা, প্রকাশনা, সম্মাননা ইত্যাদি। সিভি হয় মূলত দুই থেকে তিন পাতার। সময় অনুসারে সিভি সাজানো হয়ে থাকে। সাম্প্রতিক পর্যায় থেকে শুরু করে পেছনের দিকে যেতে থাকে তথ্য বিবরণী। 

রেজ্যুমে 

রেজ্যুমে বা Resume- হচ্ছে ফরাসি শব্দ। এর অর্থ সংক্ষিপ্ত বিবরণী। রেজ্যুমে হয় সাধারণত এক পাতার, সিভির মতো পুরো জীবনবৃত্তান্ত থাকে না। সংক্ষিপ্তভাবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নিয়ে সাজানো হয় রেজ্যুমে। ব্যক্তি বা কাজ বা আবেদনের ওপর ভিত্তি করে এটি লেখা হয়। যে কাজের জন্য আবেদন করেছেন, সে কাজের দক্ষতা, অভিজ্ঞতা ও শিক্ষা ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্য থাকে রেজ্যুমেতে। সময়ানুক্রমিক বা কাজের বিবরণী- দুই অনুসারেই রেজ্যুমে লেখা হয়।

কভার লেটার 

সিভি ও রেজ্যুম- অনেকটা এক রকম হলেও কভার লেটার কিছুটা আলাদা। চাকরির আবেদনের সময় সিভি বা রেজ্যুমের সঙ্গে দিতে হয় এটি। চাকরিপ্রার্থীর যোগ্যতার সারসংক্ষেপ থাকে কভার লেটারে। কেন আপনি চাকরির প্রতি নিজেকে যোগ্য মনে করেন বা নতুন প্রার্থী হলে কেন চাকরিটির প্রতি আপনার আগ্রহ- এসব লেখা থাকে কভার লেটারে। নিয়োগদাতাদের চাহিদা অনুসারে এটি লেখতে হয়। 

এম আর/আওয়াজবিডি


অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/awaazbdonlinenews

অনলাইন ডেস্ক

mujib_100
ads
আমাদের ফেসবুক পেজ
সংবাদ আর্কাইভ