রেলের আলোচিত অতিরিক্ত সচিব মাহবুব কবির ওএসডি

মাহবুব কবির

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মাহবুব কবিরকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়ে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করা হয়েছে।

এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনা তৈরি হয়েছে। ওএসডি করে মাহবুবকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে যুক্ত করা হয়েছে। নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় গত ২৫ মার্চ তাকে রেলপথ মন্ত্রণালয়ে অতিরিক্ত সচিব হিসেবে বদলি করা হয়েছিল।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে বৃহস্পতিবার প্রজ্ঞাপন জারি করে অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার পাঁচ জনের বদলির কথা বলা হয়। এর মধ্যে চার জনকে বিভিন্ন দায়িত্ব দেওয়া হলেও মাহবুব কবিরকে ওএসডি করা হয়।

মাহবুব সম্পর্কে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের একজন কর্মকর্তা বলেন, খাবারে ভেজাল ও রাসায়নিক মেশানোর বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে পরিচিতি পেয়েছিলেন তিনি। এছাড়া রেস্টুরেন্টে খাবারের মান নিয়ন্ত্রণেও বেশ কিছু কাজ করেছিলেন যা সবার মাঝে সমাদৃত হয়। রেস্টুরেন্টের মান অনুযায়ী প্রথম রেটিং ব্যবস্থা চালু করেন মাহবুব।

রান্নাঘরে কেমন পরিবেশে খাবার তৈরি হচ্ছে তা যেন রেস্টুরেন্টে বসে গ্রাহকরা মনিটরের পর্দায় দেখতে পারেন সেই ব্যবস্থাও চালু করেছিলেন তিনি। এর পর রেলপথ মন্ত্রণালয়ে এসে টিকিট কালোবাজারি বন্ধের উদ্যোগ নেন মাহবুব কবির। রেলের টিকিটিং ব্যবস্থাকে অনলাইনে নির্বাচন কমিশনের জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য ভাণ্ডারের সঙ্গে যুক্ত করার একটি প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ে দিয়েছিলেন তিনি।

এই ব্যবস্থা কার্যকর হলে যার নামে টিকিট ইস্যু হতো শুধুমাত্র তিনিই ভ্রমণ করতে পারতেন। তার আশা ছিল এতে টিকিটের কালোবাজারি বন্ধ হবে। নিজে ওএসডি হওয়ার কথা বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে ফেসবুকে নিজের ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করেন মাহবুব। তার পোস্টে ৩০ হাজার মানুষ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। মন্তব্য এসেছে প্রায় সাড়ে ৬ হাজারের কাছাকাছি। আর পোস্টটি শেয়ার করেছেন ৫ হাজার ৮০০ জনের বেশি। এ ছাড়া সাধারণ ব্যবহারকারী ও অনলাইন অ্যাক্টিভিস্টদের অনেকেই সরকারের এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে পোস্ট দিয়েছেন।


অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/awaazbdonlinenews

অনলাইন ডেস্ক

mujib_100
ads
আমাদের ফেসবুক পেজ
সংবাদ আর্কাইভ