প্রেমিকের আত্মহত্যার পর ববি ছাত্রীর আত্মহত্যা

১৮০
ববি ছাত্রীর আত্মহত্যা

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। ওই শিক্ষার্থীর নাম সুপ্রিয়া দাস। তিনি গণিত বিভাগের চতুর্থ ব্যাচের শিক্ষার্থী। শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় ফারিদপুরের নিজ বাসায় তিনি আত্মহত্যা করেন।

জানা গেছে, গত ১৫ জুন সুপ্রিয়ার প্রেমিক তপু মজুমদার আত্মহত্যা করে। এর দেড় মাস পরে এই ঘটনা ঘটল। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. সুব্রত কুমার বলেন, ‘খবর শুনে সন্ধ্যায় তার বাবার সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হয়েছে। এটা খুবই মর্মান্তিক ঘটনা। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে তার শোকসন্তপ্ত পরিবারকে সমবেদনা জানাই। ’

সুপ্রিয়া দাসের সহপাঠী ও কাছের এক বন্ধু জানান, কুয়েটের শিক্ষার্থী তপু মজুমদারের সঙ্গে উচ্চমাধ্যমিক থেকেই প্রেমের সম্পর্ক ছিল সুপ্রিয়ার। দুজনের বাসা একই এলাকায়। উভয় পরিবার মেনে নিয়েছিল দুজনের সম্পর্ক। করোনার মধ্যেও সুপ্রিয়ার বাসায় এসেছিল তপু মজুমদার।

তিনি বলেন, গত ১৪ জুন রাতে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। কান্না করতে করতে সুপ্রিয়া ঘুমিয়ে পড়ে। ঘুম থেকে উঠে দেখতে পায় অনেক এসএমএস। তাৎক্ষণিক ফোন করে জানতে পারে তপু আত্মহত্যা করেছে।

এরপরই মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে সুপ্রিয়া। তপু আত্মহত্যার জন্য সামাজিকভাবে তাকে দোষারোপসহ নানান কটূক্তি করা হয়। সামাজিক ও মানসিক চাপেই সুপ্রিয়া আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছে বলে মনে করেন তার কাছের বন্ধুরা।

এদিকে সুপ্রিয়ার এমন আত্মহননে শোকের ছায়া নেমে এসেছে ক্যাম্পাসে। দাবি উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ে মনস্তাত্ত্বিক পরামর্শ সেল গঠনের।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. মিজানুর রহমান বলেন, অপ্রত্যাশিত মৃত্যু সত্যিই বেদনাদায়ক। এ ধরনের আত্মহত্যা রোধে মনস্তাত্ত্বিক পরামর্শ সেল অত্যন্ত জরুরি।

আওয়াজবিডি ডেস্ক
আওয়াজবিডি ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/awaaz-news

অনলাইন ডেস্ক

ads