দেশে করোনার নতুন ৮ বৈশিষ্ট্য শনাক্ত

করোনাভাইরাস

দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ছাড়িয়েছে। বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ৫৯০ বার জিন পরিবর্তন করেছে মরণঘাতী এ ভাইরাস। এর মধ্যে ৮টি একেবারেই নতুন মিউটেশন, যা বিশ্বের আর কোথাও হয়নি কেবল বাংলাদেশেই হয়েছে।

বাংলাদেশের বিস্তার হওয়ার ভাইরাসটির সঙ্গে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মিল পাওয়া গেছে ইতালির ভাইরাসের সঙ্গে। দেশে করোনা ভাইরাসের ২২২টি জিনোম সিকোয়েন্সিং উন্মোচন করে এসব তথ্য জানায় বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ।

রবিবার (১৮ জুলাই) এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরেন বাংলাদেশ শিল্প ও বিজ্ঞান গবেষণা পরিষদের (বিসিএসআইআর) জিনোমিক রিসার্চ ল্যাব।

সংবাদ সম্মেলনে জিনোমিক রিসার্চ ল্যাব প্রধান সেলিম খান বলেন, ২১২ থেকে ৫২৩ পর্যন্ত ৮টি মিউটেশন পেয়েছি ইউনিক, এই মিউটেশনগুলো পৃথিবীর অন্য কোথাও ঘটে নি। আমরা প্রত্যেকটি জিনোম সিকোয়েন্সে ডি৬১৪জি করোনা ভাইরাস স্ট্রেইনটি পেয়েছি।

গবেষণায় দেখা গেছে, বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস ইতিমধ্যে তার জিনোমিক লেভেলে ৫৯০টি ও প্রোটিন লেভেলে ২৭৩টিরও অধিক পরিবর্তন ঘটিয়েছে। এগুলোর মধ্যে ৯৫ শতাংশ ক্ষেত্রে ডি৬১৪-জি করোনা ভাইরাস স্ট্রেইনটি সিকোয়েন্সিংয়ে শনাক্ত হয়েছে, যাকে আমরা বাংলাদেশে সংক্রমণের প্রধান কারণ হিসেবে বলছি।

তিনি আরো বলেন, ডি৬১৪-জি ধরনটি নিয়ে চীনের গবেষকরা বলছেন, করোনা আক্রান্তদের দেহে যে এন্টিবডি তৈরি হয়, তা পরবর্তীতে বিভিন্ন ধরনগুলোকে ঠেকাতে পারলেও ডি৬১৪-জির ক্ষেত্রে অসহায় হয়ে পড়ে।

এসএম/আওয়াজবিডি


অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/awaazbdonlinenews

অনলাইন ডেস্ক

mujib_100
ads
আমাদের ফেসবুক পেজ
সংবাদ আর্কাইভ