ভক্ত-অনুরাগীদের শ্রদ্ধায় সিক্ত ‘প্লেব্যাক সম্রাট’ এন্ড্রু কিশোর

১৬২
এন্ড্রু

ফুলে ফুলে ছেয়ে গেছে এন্ড্রু কিশোরের চারপাশে। শুধু ঘ্রাণ নেওয়ার জন্য তিনি বেঁচে নেই। কিন্তু ভালোবাসা তো থাকে চিরকাল। বুধবার সকাল থেকে রাজশাহীর সিটি চার্চে প্রাঙ্গনে প্লেব্যাক সম্রাটকে শ্রদ্ধা জানাতে ভিড় করেন ভক্ত-অনুরাগীরা।

জানা যায়, সকাল ৯টার পর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘর থেকে গায়কের লাশ আনা হয় চার্চে। ১০টা পর্যন্ত সেখানেই রাখা হয়। এন্ড্রু কিশোরের স্ত্রী-দুই সন্তান ও অন্য পরিজনদের নিয়ে প্রার্থনা করেন ফাদার।

প্রার্থনা শেষে সর্বসাধারণের জন্য চার্চের সামনে স্থাপিত মঞ্চে রাখা হয় মরদেহ। এখানে ফুলে ফুলে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সিক্ত হন এন্ড্রু কিশোর। শ্রদ্ধা জানানো শেষে মরদেহ নেওয়া হবে রাজশাহীর কালেক্টরেট মাঠের পাশে খ্রিষ্টানদের কবরস্থানে।

সেখানে বাবা-মায়ের কবরের পাশেই চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন জীবনের গল্প গায়ক। গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন ছিলেন এন্ড্রু কিশোর।

৯ মাস পর ১১ জুন বিশেষ ফ্লাইটে দেশে ফেরেন। তারপর ঢাকার বাসায় বেশকিছু দিন অবস্থান করে শরীরের অবস্থা বিবেচনায় ও কোলাহলমুক্ত থাকতে রাজশাহী চলে আসেন।৬ জুলাই রাজশাহীর এলাকায় বোন শিখা বিশ্বাসের বাসায় এন্ড্রু কিশোর শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তারপর তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হিমঘরে রাখা হয়।

এই শিল্পীর দুই সন্তান ছেলে জে এন্ড্রু সপ্তক ও মেয়ে মিনিম এন্ড্রু সংজ্ঞা। দুজনেই অস্ট্রেলিয়ায় পড়াশোনা করছেন। তাদের জন্যই মৃত্যুর নয়দিন পর শেষকৃত্যের আনুষ্ঠানিকতা হচ্ছে।

আওয়াজবিডি ডেস্ক
আওয়াজবিডি ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/awaaz-news

অনলাইন ডেস্ক

ads