প্রথম ধাপে ‘সবার শরীরে কার্যকর’ যুক্তরাষ্ট্রের টিকা

করোনার টিকা

যুক্তরাষ্ট্রের মডার্না কোম্পানি দেশটির সরকারের সহায়তায় সম্ভাব্য করোনা প্রতিরোধী যে ভ্যাকসিন (mRNA-1237) তৈরি করছে, সেটি প্রথম ধাপের ট্রায়ালে অংশগ্রহণকারী সবার শরীরে ‘নিরাপদ’ এবং ‘কার্যকর অ্যান্টিবডি তৈরি করেছে বলে নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিনে দাবি করা হয়েছে।

জুলাইয়ের ২৭ তারিখ শুরু হবে চূড়ান্ত অর্থাৎ তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল। মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, এই টিকাটির ডেটা যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম করোনো প্রতিরোধী টিকা হিসেবে কোনো পিয়ার-রিভিউড জার্নালে প্রকাশিত হতে যাচ্ছে।

যেকোনো গবেষণার জন্য পিয়ার রিভিউড (স্কলারলি বা রেফারিড) জার্নাল খুব গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এখানে বিশেষজ্ঞদের যেসব আর্টিকেল প্রকাশ করা হয়, তা প্রকাশিত হওয়ার আগে এই বিষয়ের একাধিক বিশেষজ্ঞ (রেফারি হিসেবে যারা কাজ করেন) বার বার পরীক্ষা নিরীক্ষা করেন।

সংশ্লিষ্ট বিষয়ে এ ধরনের জার্নালে প্রকাশিত আর্টিকেলকে সর্বোচ্চ মানের ধরা হয়। মডার্না মঙ্গলবার বিবৃতিতে জানিয়েছে, যদি সব এভাবে চলতে থাকে তাহলে তারা প্রতি বছর ৫০০ মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন তৈরি করতে সক্ষম হবে। ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে এটি শুরু হতে পারে।

গত মাস থেকেই এই টিকাটির ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকেরা ইতিবাচক তথ্য দিতে থাকেন। কিন্তু কোনো জার্নালে এই প্রথম ডেটা প্রকাশ করা হলো। মডার্না জানিয়েছে, প্রথম ধাপের ফলাফল বিশ্লেষণ করে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ধাপের ডোজ নির্ধারণ করা হচ্ছে। একটি ভ্যাকসিনের ট্রায়ালে সাধারণত তিনটি ধাপ থাকে।

প্রথম ধাপে অল্প মানুষকে যুক্ত করা হয়। দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ধাপে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা আরও বাড়ানো হয়। মডার্না তাদের প্রথম ধাপে ৪৫ জনকে অন্তভুক্ত করেছিল, যাদের বয়স ছিল ১৮ থেকে ৫৫ বছরের মধ্যে। দ্বিতীয় ধাপও শেষের পথে। তৃতীয় ধাপে থাকবে ৩০ হাজার মানুষ, তাদের শরীরে ভ্যাকসিনটি শতভাগ নিরাপদ থাকবে কি না, এখন সেটি দেখা হবে।

অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/oeazq8
ads