চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এম এ হকের মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতার শোক

হক

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য, সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি এম এ হক শুক্রবার করোনা উপসর্গ নিয়ে ইন্তেকাল করেছেন। সকাল সাড়ে দশটায় সিলেট নর্থ-ইষ্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফুসফুসের সংক্রমণ, করোনা উপসর্গ ও হৃদরোগে অসুস্থতা নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।এম এ হক-এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা ও যুবদলের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদক এম এ বাতেন।

এক শোক বার্তায় যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা ও যুবদলের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদক এম এ বাতেন বলেন, দেশ ও দলের প্রতি মরহুম এম এ হকের অবদানের কথা সিলেটবাসী ও বিএনপি চিরদিন স্মরণ করবে। তাঁর রাজনৈতিক ও পেশাগত সকল কর্মকা-ের মূলে ছিল নীতি-নৈতিকতা ও মূল্যবোধ। তাঁর রাজনীতির মূল উপজীব্য ছিল সমাজসেবা। শত প্রতিকুলতার মধ্যেও তিনি নীতি ও আদর্শ থেকে বিন্দুমাত্র বিচ্যুৎ হননি। সৎ রাজনীতিবিদের এক উজ্জল দৃষ্টান্ত মরহুম এম এ হক ছিলেন বিনয়, সাহস ও শিষ্টাচারের মিলিত রুপ। নিরন্তর প্রচেষ্টার মধ্য দিয়ে তিনি সিলেট বিভাগে বিএনপিকে শক্ত ভিত্তির ওপর দাঁড় করিয়েছিলেন। দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে তিনি ছিলেন একান্তজন।

শহীদ জিয়ার গণতন্ত্র ও বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদী দর্শণ ছিল তাঁর রাজনৈতিক পথপরিক্রমার অন্তর্নিহিত শক্তি। তাঁর জীবন ও রাজনীতি ছিল অবিচ্ছেদ্য অংশ। বহুদলীয় গণতন্ত্র ও জাতীয়তাবাদী রাজনীতির প্রতি বিএনপি’র অঙ্গীকার বাস্তবায়নে একজন সাহসী সৈনিক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন মরহুম এম এ হক।

অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/oeazq8
ads