স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই যুক্তরাষ্ট্রে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

২২৩
যুক্তরাষ্ট্রে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির মধ্যেই নানা আয়োজনে উদযাপন করা হলো দেশটির ২শ' ৪৪তম স্বাধীনতা দিবস। কোভিড -১৯ এর ঝুঁকি উপেক্ষা করে রাষ্ট্রীয় প্রায় সব অনুষ্ঠানেই অংশগ্রহণ করেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে হোয়াইট হাউজ প্রাঙ্গণসহ বিভিন্ন স্থানের আয়োজনে উপেক্ষিত ছিলো স্বাস্থ্যবিধি।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে আরও প্রায় ৫৫ হাজার মানুষের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৬ শ'রও বেশি। মহামারি করোনাভাইস আর বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভে যখন নাকাল যুক্তরাষ্ট্র; তখনই উদযাপন করা হলো দেশটির ২৪৪তম স্বাধীনতা দিবস।

নানা উৎসব, আয়োজনে প্রতিবছর দিনটি উদযাপন করা হলেও এবারের প্রেক্ষাপট পুরো ভিন্ন। চার মাসের কম সময়ে দেশটিতে ১ লাখ ৩২ হাজারের বেশি মানুষের মারা গেছেন। আক্রান্ত ৩০ লাখের কাছাকাছি। এ অবস্থায় স্বাধীনতা দিবসের বড় আকর্ষণ বাৎসরিক প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়নি। তবে রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে কমতি ছিলো না আনুষ্ঠানিকতার। সমাবেশ, বিমান মহড়া ও আতশবাজিসহ প্রায় সব রাষ্ট্রীয় আয়োজনের স্ত্রী মেলানিয়াকে সঙ্গে নিয়ে অংশ নেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। অনুষ্ঠানে অতিথিদের মধ্যে ছিলেন কয়েকশ' চিকিৎসাকর্মীও।

ঘরে বসে এ উদযাপন উপভোগের নির্দেশনা থাকলেও, হোয়াইট হাউজ প্রাঙ্গণে জড়ো হন কয়েক হাজার মানুষ। সামাজিক দূরত্বসহ স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো বালাই ছিল না সেখানে। অনুষ্ঠানে জাতির উদ্দেশে ভাষণে ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র অসাধারণ জয়ের পথে আছে বলে মন্তব্য করেন ট্রাম্প।

ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে কোনো বৈষম্য নেই। স্বাধীনতা দিবসের দিনেও যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ হয়েছে। শনিবার হোয়াইট হাউজের সামনে বিক্ষোভ করেন কয়েকশ' মানুষ। ১৭৭৬ সালের দোসরা জুলাই ইংল্যান্ডের শাসন থেকে পৃথক হওয়ার জন্য ভোট দেন আমেরিকার দ্বিতীয় কন্টিনেন্টাল কংগ্রেস। এর দুইদিন পর স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রে চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় কংগ্রেস। কিন্তু পৃথক হতে ব্রিটেনের সঙ্গে চূড়ান্ত স্বাক্ষর ২ আগস্টে অনুষ্ঠিত হলেও প্রতি বছরের ৪ জুলাই স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করে যুক্তরাষ্ট্র।

আওয়াজবিডি ডেস্ক
আওয়াজবিডি ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/awaaz-news

অনলাইন ডেস্ক

ads