বজ্রপাতে উত্তরপ্রদেশ-বিহারে ৪৩ জনের মৃত্যু

১২৬
বজ্রপাত

ভারতের উত্তরপ্রদেশ ও বিহার রাজ্যে শনিবার বজ্রপাতের ঘটনায় কমপক্ষে ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও ২৯ জন।

উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন জেলায় শনিবার (০৪ জুলাই) বিকেলে বাজ পড়ে কমপক্ষে ২৩ জনের মৃত্যু হয়। আহত হন আরও অন্তত ২৯ জন। সরকারি সূত্রের খবর, ২৩ জনের মধ্যে শুধু এলাহাবাদেই প্রাণ হারিয়েছেন আট জন। মির্জাপুরে মৃত্যু হয়েছে ছয় জনের। কৌশাম্বিতে মারা গিয়েছেন দুজন। জৌনপুরে এ পর্যন্ত একজনের মৃত্যুর খবর মিলেছে।

এদিকে, ভাদোহিতে কমপক্ষে আরও ছয় জন মারা গিয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ছয় জন। বজ্রপাতে মৃত্যুর ঘটনায় এদিন গভীর শোকপ্রকাশ করেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। মৃতদের পরিবারের জন্য ৪ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেন তিনি।

এর আগে ২৫ জুন উত্তরপ্রদেশে বজ্রপাতে কমপক্ষে ২৪ জনের মৃত্যু হয়। এদিকে, বিহারে বাজ পড়ে শনিবার আরও কমপক্ষে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। সবমিলিয়ে গত দশ দিনে এই রাজ্যে বজ্রপাতে মৃতের সংখ্যা ১৬০ জন ছাড়িয়ে গিয়েছে।

গত ২৫ জুন বিহারে বজ্রপাতে ৯৭ জন মারা যান। সাম্প্রতিক অতীতে বিহারে বজ্রপাতে এত মৃত্যু কখনও হয়নি। এদিকে, দু-ঘণ্টার ভারী বর্ষণে রাজধানী শহরের একাধিক অঞ্চল জলমগ্ন হয়ে পড়ায়, বিরোধীদের তোপের মুখে পড়েছেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার।

রবিবার (৫ জুলাই) পর্যন্ত রাজধানী পটনাসহ বিহারের একাধিক শহরে ভারী বর্ষণের সতর্কতা জারি করেছে ভারতীয় আবহাওয়া অফিস। দুর্যোগ মাথায় নিয়ে লোকজনকে বাড়ির বাইরে বেরোতে নিষেধ করেছে সংশ্লিষ্ট জেলাপ্রশাসন। ভারতে প্রতিবছর বহু মানুষ বজ্রপাতে মারা যায়। তবে, আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে উড়িশ্যা কিন্তু বজ্রপাতে মৃত্যু কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি বেসরকারি কোম্পানির সহযোগিতায় বজ্রপাতের আগাম সতর্কতা জারির ব্যবস্থা করেছে উড়িশ্যা। যে কারণে তারা বজ্রপাতে মৃত্যু ৩১ শতাংশ কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে।

আওয়াজবিডি ডেস্ক
আওয়াজবিডি ডেস্ক
https://www.awaazbd.net/author/awaaz-news

অনলাইন ডেস্ক

ads